সর্বশেষ সংবাদ

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশে বিনামূল্যে তিন দিন বেড়ানোর সুযোগ

ফিনল্যান্ড

ফিনল্যান্ড উত্তর-পশ্চিম ইউরোপে বাল্টিক সাগরের উপকূলে অবস্থিত একটি রাষ্ট্র। ফিনল্যান্ড ইউরোপের সবচেয়ে উত্তরে অবস্থিত দেশগুলির একটি। এর এক-তৃতীয়াংশ এলাকা সুমেরুবৃত্তের উত্তরে অবস্থিত। এখানে ঘন সবুজ অরণ্য ও প্রচুর হ্রদ রয়েছে। প্রাচীরঘেরা প্রাসাদের পাশাপাশি আছে অত্যধুনিক দালানকোঠা। বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকায় টানা দুই বছর ধরে শীর্ষে আছে ফিনল্যান্ড। এই সুখ-শান্তির তরিকা কী? দেশটির বাসিন্দারা তা বোঝাতে দুয়ার খুলে দিয়েছে! বিশ্বের অন্যান্য দেশের ভ্রমণপিপাসুদের সামনে সুখে-শান্তিতে বসবাসের চিত্র তুলে ধরবেন তারা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ‘আই উইশ আই ওয়াজ ইন ফিনল্যান্ড’ পেজে চালু হয়েছে ‘রেন্ট অ্যা ফিন’ শীর্ষক উদ্যোগ। এর লক্ষ্য দেশটির বাসিন্দাদের ঘরে গ্রীষ্মকালে তিন দিন বেড়ানোর জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের পর্যটকদের একত্র করা। তাদের তিন দিনের যাবতীয় খরচ বহন করবে ফিনল্যান্ডের জাতীয় পর্যটন বোর্ড ‘ভিজিট ফিনল্যান্ড’। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘প্রকৃতির সঙ্গে কীভাবে সংযুক্ত থাকা যায় সেই অভিজ্ঞতা দিতে অন্যান্য দেশের ভ্রমণপ্রেমীদের স্বাগত জানিয়ে নিজেদের ঘরবাড়ি ও জীবনযাপন ভাগাভাগি করবেন ফিনল্যান্ডের বাসিন্দারা। ফিনিশ প্রকৃতির মাঝে সত্যিকারের শান্তি খুঁজে পাবেন তারা।’

সম্পর্কিত ছবি

এই ভ্রমণে আগ্রহীরা চাইলে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। তার আগে বানাতে হবে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ভিডিও। নিজের সম্পর্কে বর্ণনা, প্রকৃতির সঙ্গে নিজের সংযোগের বিষয়ে টুকটাক কথা ও ফিনল্যান্ড ভ্রমণের অভিজ্ঞতা কেন নিতে চান তা জানিয়ে সাজাতে হবে ভিডিওটি। মনে রাখার মতো গ্রীষ্ম উপভোগের সুযোগটি চাইলে বাংলাদেশিরাও লুফে নিতে পারেন।

ফিনল্যান্ডের প্রতিনিধি হিসেবে সারাদেশ থেকে আটটি পরিবারকে পর্যটকদের আতিথেয়তা দেওয়ার জন্য নির্বাচন করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ভিজিট ফিনল্যান্ডের জনসংযোগ ও মিডিয়া ম্যানেজার জুনাস হালা বলেন, ‘আমরা ফিনল্যান্ডের সাধারণ মানুষদের চেয়েছি যারা অতিথিদের নিরেট গল্প বলবে ও সুন্দর প্রকৃতি দেখাবে।’

ফিনল্যান্ড এর ছবির ফলাফল



গত বছর জাতিসংঘের সমীক্ষায় ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্টে সবচেয়ে সুখী দেশ নির্বাচিত হওয়ার পরই ‘রেন্ট অ্যা ফিন’ প্রচারণার পরিকল্পনা করা হয়। মানুষের উদারতা, জীবনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে তাদের স্বাধীনতা, সামাজিক যোগাযোগ, সুস্বাস্থ্য ও জীবনের প্রত্যাশা অনুযায়ী জাতিসংঘের প্রতিবেদনে ফিনল্যান্ডকে সবচেয়ে সুখী দেশের তকমা দেওয়া হয়েছে। ছয় বছর ধরে বিশ্বের শীর্ষ ১০ সুখী দেশের তালিকায় আছে উত্তর ইউরোপের এই স্বর্গ। সুমেরুপ্রভার উপভোগের জুতসই জায়গা, সুস্বাদু খাবার, অসংখ্য বনাঞ্চল, টাটকা হাওয়া, বৃহৎ দ্বীপপুঞ্জ, অদ্ভুত ভাষা, ও সান্তাক্লজের জন্য বিখ্যাত ল্যাপল্যান্ডের সুবাদে নর্ডিক দেশটির খ্যাতি দুনিয়াজোড়া।

২০১৯ সালেও খেতাবটি ধরে রেখেছে দেশটি। আগামীতে এই উদ্যোগ চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী দেশটির পর্যটন বোর্ড। তাদের চাওয়া, এর অংশ হিসেবে ফিনল্যান্ডের গর্বিত নাগরিকরা নিজেদের দেশকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরবে।

সূত্র: সিএনএন

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*